ক্যাপচা কেনো ব্যবহার করা হয়? জানুন সমস্তকিছু

বন্ধুরা আপনি হয়তো দেখেছেন , কিছু কিছু ওয়েবসাইটে (Website এ) ক্যাপচা লাগানো থাকে। ওই ক্যাপচা পূরণ করতে আমাদের সময় লেগে যায়, যার ফলে কখনো কখনো আমাদের ক্যাপচা পূরণ করতে অসহ্য লাগে। কিন্তূ আপনি কি জানেন এই ক্যাপচা এর কাজ কি অথবা কেনো ব্যবহার করা হয় ? এই সবকিছুই জানবো এই আর্টিকেলে।

ক্যাপচা কেনো ব্যবহার করা হয়?

ক্যাপচা ব্যাবহার করার কারণ হলো, কোনো ওয়েবসাইটে যখন কেউ ভিজিট করে তখন ওই ওয়েবসাইটটি ক্যাপচা সম্পূর্ণ করতে বলে। এর মাধ্যমে বুঝে নেয় এটি মানুষ নাকি রোবট।

কিন্তূ, মানুষ নাকি রোবট এটি কেনো জানতে চায়, ওয়েবসাইট গুলি ? এই প্রশ্নের উত্তর হলো, কোনো ওয়েবসাইটে রোবট ভিজিট করে অসংখ্য অ্যাকাউন্ট বানিয়ে দিতে পরে।

কিন্তূ ক্যাপচা দেওয়া থাকলে, রোবট কোনোভাবেই ওই ক্যাপচা কে সম্পূর্ণ করতে পারবে না। যার ফলে রোবট কোনো ওয়েবসাইটে কোনো অ্যাকাউন্ট বানানো কিম্বা কোনো গুরুত্তপূর্ণ কাজ করতে পারবে না।

আমরা প্রোগ্রামিংয়ের মাধ্যমে বিভিন্ন স্ক্রিপ্ট (Script) বানাতে পারি। এবং ওই স্ক্রিপ্ট (Script) টি run করে কোনো ওয়েবসাইটে অসংখ্য অ্যাকাউন্ট বানাতে পারি অথবা অনলাইনে কোনোকিছু বুকিং করতে পারি ওই প্রোগ্রামিংয়ের সাহায্যে। যা একপ্রকারের স্প্যাম ( spam) বলা যেতে পারে । আর এই স্প্যাম করা কে আটকানোর জন্যই ক্যাপচা লাগানো থাকে। যার ফলে প্রোগ্রামিং রোবটের মাধ্যমে যখন কোনো অ্যাকাউন্ট বানাতে যাবে অথবা অনলাইনে কোনোকিছু বুকিং করতে । তখনই প্রোগ্রামিং রোবট ওই ক্যাপচা টি সম্পূর্ণ করতে পারবে না। এবং কাজটি সম্পন্ন করতে পারবে না।

উদাহরণ হিসেবে, ধরুন কোনো ব্যাক্তি প্রোগ্রামিংয়ের মাধ্যমে একটি স্ক্রিপ্ট বানালেন । ওই স্ক্রিপ্টটি run করলে , ফেসবুক একাউন্ট বানানো হয়ে যাবে । এবং ওই স্ক্রিপ্ট টি সব সময় যদি Run করা হয় তাহলে একদিনেই লাখ লাখ ফেসবুক একাউন্ট বানিয়ে ফেলবে। এবং ওই অ্যাকাউন্ট কোনো মানুষ বানাচ্ছে না। তাই ওই অ্যাকাউন্ট কে ব্যবহার করাও হবে না । অর্থাৎ ওই ব্যাক্তি প্রোগ্রামিং এর মাধ্যমে কোনো ওয়েবসাইটে স্প্যাম করতে পারে।

দ্বিতীয় উদাহরণ, কোনো ওয়েবসাইটে অনলাইনে সেল চলছে , কোনো একটি নির্দিষ্ট সময়ে সবার প্রথম যে ওই প্রোডাক্টটি (Product টি) কিনবেন তিনি ফ্রী তে পাবেন। এই অবস্থায় কোনো ব্যাক্তি প্রোগ্রামিং স্ক্রিপ্ট বানাতে পারে। যার ফলে ওই নিদিস্ট সময় স্বয়ংক্রিয়ভাবে ( automatically) কম্পিউটারে ওই ওয়েবসাইট খুলে , সহজেই সবার আগে প্রোডাক্টটি কিনতে পারা সম্ভব। কারণ প্রোগ্রামিংয়ের মাধ্যমে সমস্ত তথ্য আগে থেকে লেখা আছে যার ফলে খুবই কম সময় লাগবে । একজন মানুষ করতে গেলে প্রোগ্রামিং রোবটের তুলনায় অনেক বেশি সময় লাগবে। যার ফলে ওই যিনি প্রোগ্রামিংয়ের বানিয়েছে, উনি সবসময়ই সবার প্রথম হবেন এবং সব সময়ই ফ্রী তে প্রোডাক্ট পাবেন। বাকি যারা চেষ্টা করছেন ওনারা কখনোই প্রথম হতে পারবে না। এর পর যারা ওই সেলে অংশগ্রহন করবে তাদের মনোবল হারাবে। এটি কোম্পানি চায় না।এই কারণে ক্যাপচা লাগিয়ে রাখলে প্রোগ্রামিং স্ক্রিপ্টটি ক্যাপচার কাছে আটকে যাবে।

ক্যাপচা কিভাবে কাজ করে?

প্রথম প্রথম ক্যাপচা বানানোর জন্য বিভিন্ন বইয়ের থেকে এমন কিছু কিছু লেখার ধরন কম্পিউটারে স্ক্যান করা হয়েছিল। এবং দেখা হয়েছিল কম্পিউটার কোন ওয়ার্ড গুলিকে পড়তে পারেনি।

ওই ওয়ার্ডগুলি ক্যাপচা (Captcha) হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছিল। যার ফলে শুধু মানুষই বুঝতে পারবে। কিন্তূ সমস্যা হলো, ব্যবহারকারীকে প্রত্যেকবার ওই লেখাগুলি কে লিখতে হয়। যার ফলে ব্যাবহারকারীর কাছে একপ্রকারের বেশি সময় লাগতো এবং একপ্রকার সমস্যার সৃষ্টি করত।

এই সমস্যা সমাধানের জন্য, গুগল কোম্পানি নতুন রকমের ক্যাপচা(Captcha) বানিয়েছে যা Recaptcha নামে পরিচিত। ওই recaptcha টির মধ্যে আপনার I am not robot এরকম লেখা দেখাবে। ওই লেখার ওপরের টিক (✓) করলেই গুগলের কাছে তথ্য পৌঁছে যাবে, যে কোন সময়ে ✓ করছেন, কত সময় ধরে ওই পেজে আছেন , কোন দিক থেকে কম্পিউটারের কর্সর টি ✓ করছে।ওই সমস্ত তথ্য বিচার করে গুগল ঠিক করে , এটি মানুষ ক্লিক করেছে নাকি কোনো রোবটের দারা ক্লিক করেছে।

কিন্তূ কোনোভাবে যদি গুগলের মনে হয় এটি রোবটের দ্বারা ক্লিক হয়েছে। তাহলে অনেক রকমের ছবি দেখাবে। ওই ছবি গুলির মধ্যে যেগুলিকে ক্লিক করতে বলবে ওই ছবিগুলি তে সঠিকভাবে ক্লিক করতে হবে।

কিভাবে সহজেই গুগলের ক্যাপচা পূরণ করবেন?

অনেকেই আছেন গুগলের ক্যাপচা পুরন করতে পারেন না কিম্বা খুবই সমস্যার মধ্যে পড়ে থাকেন ক্যাপচা পূরণ করার জন্য । তাই আপনার জানা দরকার যদি কোনরকমের সমস্যা দেখা দেয় তাহলে আমার এই টিপস গুলো অনুসরণ করে সহজেই ক্যাপচা পূরণ করতে পারবেন।

যদি মোটরসাইকেলের একটি ছবি থাকে , ওই ছবিগুলির টি বিভিন্ন ব্লকের আশেপাশের একটু একটু বেরিয়ে থাকে। এর মধ্যে আপনাকে ৩ টি জায়গায় ছবি যার মধ্যে মোটর সাইকেলের আশেপাশে ব্লক গুলি মিলিয়ে মোটামুটি ৩ টে ব্লক কে সিলেক্ট (Select) করতে হবে।

এছাড়া যদি অনেক মোটর সাইকেলের ছবি থাকে এর মধ্যে মাত্র ৩ টি ব্লক কে ক্লিক করে সিলেক্ট করতে হবে।

৩ টির বেশী ব্লককে ক্লিক (Click) করলেই হয়ে যাবে। যদি প্রথমবার না হয় তাহলে আবার আবার চেষ্টা করুন।

কখনো কখনো গুগলের ক্যাপচা পূরণ করার সময় যা লেখা থাকে ওই ছবি দেখতে পাওয়া যায়না , এই ক্ষেত্রে কোনো ছবিতে ক্লিক করে skip বাটনে ক্লিক করলেই হয়ে যাবে হয়ে যাবে।

আবার কখনো কখনো ৩তে ছবিতে ক্লিক করার পরেও submit বাটন আসে না , এই সমস্যা দেখা দিলে প্রথমবার এমনিতেই যেকোনো ছবিতে ক্লিক করে next বাটন এ ক্লিক করতে হবে , এরপরে দ্বিতীয়বারের ছবিতে সঠিকভাবে পূরণ করতে পারলে হয়ে যাবে।

উপসংহার

আশাকরি বন্ধুরা আপনি জানতে পেরেছেন ক্যাপচা সমন্ধে অনেককিছুই , সহজভাবে বলতে গেলে ক্যাপচা হলো একপ্রকারের স্পামিং কে আটকানোর জন্য সঠিকভাবে সবাইকে পরিসেবা দেওয়ার জন্য একটি পদ্ধতি।

রিক্যাপটচা এর মাধ্যমে ব্যবহারকারীর অনেক বেশি সুবিধে হয়েছে। নাহলে আগেকার মতো টেক্সট দেখে দেখে লেখা অনেকটা সমস্যার। যদিও এখনও অনেক ওয়েবসাইটে আগেরকার মতো টেক্সট লিখতে হয়ে যা কিছুটা বেশি সময় লাগে।

যদি কোনো রকমের প্রশ্ন থাকে তাহলে জিগেস করতে পারেন।

শেয়ার করুন

Leave a Comment

Your email address will not be published.