চালাক হওয়ার উপায় কী?

চালক হওয়ার উপায়:

সত্যিই কি একজন মানুষ চাইলে চালক হতে পারবে?

উত্তরটা হলো: না।

এভাবে কেউ কোনোভাবে চালক হতে পারেনা। উল্টে বোকা অথবা পছন্দ না হওয়ায় ব্যাক্তি হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি ।

আমাদের জীবনে আমরা যা কিছু দেখি শুনি এগুলো আমাদের ডিসিশন নিয়ে সাহায্য করে।

যে মানুষটা অনেক কিছু দেখেছে শুনছে। তার কাছে ওই বিষয় সমন্ধে অনেকটা অবগত হওয়ার জন্য ওই মানুষকে অন্য কেউ ঠকাতে পারেনা ।

কিন্তূ আপনি যদি ওই মানুষটার অভিজ্ঞতা একদিনে নিতে চান তাহলে টা সম্ভব কি? একদমই নয়।

অনেকেই মনে করে “আমি খুব চালাক” কিন্তূ ওনার চালাকি যে বাকিরা বুঝতে পারছে সেটা ওই ব্যক্তি বুঝতে পারেন। তাই ওই ব্যক্তিকে অনেক মানুষ পছন্দ করে না। দূরে সরে যায় মানুষ ওই সব লোকেদের থেকে।

কারো বিশ্বাসের ওপর আপনি যদি তাকে ঠকিয়ে দেন তাহলে এটা চালাকি নয়। এতে মানুষ কোনোদিন কাউকে বিশ্বাস করবে না।

আমাদের পৃথিবীর সমন্ধে অনেক কিছুই জানতে হবে যাতে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারি। যাতে অন্য কারো দ্বারা প্রতারণার শিকার হতে না পারি। এটাই অভিজ্ঞতা।

দুনিয়া কত বড়ো , আপনি কে, দুনিয়ার সঙ্গে আপনার সম্পর্ক কি?, অন্যরা কি ভাবে, কি চিন্তা করে , অন্যের ভাবনা বুঝতে পারলেই আপনি নিজের ডিসিশন অনেক সঠিকভাবে নিতে পারবেন ওই মানুষটির সঙ্গে deal করার সময়।

এর জন্য মনোবিজ্ঞান অর্থাৎ psychology নিয়েও জ্ঞান রাখতে পারেন। অন্য এর মনের মধ্যে চলা কথা আপনি জানতে পারবেন।

এছাড়াও দেশ দুনিয়া, বড়ো বড়ো মনীষীদের ফিলোসফি জানতে হবে, ইতিহাসে ঘটে যাওয়া ঘটনাকে জানতে হবে।

এগুলো জানলে ইতিহাস থেকে শিক্ষা নিতে পারবেন, মনীষীদের দেওয়া গুরুত্তপূর্ণ কথার মাধ্যমে নিজেকে নিয়ন্ত্রিত রাখতে পারবেন। আর ভবিষ্যত স্বচ্ছভাবে দেখতে হবে।

ইতিহাসে যে ভুল করেছে সেই ভুল আপনি করতে পারবেন না কারণ আপনার জীবন খুব ছোটো এই ছোটো জীবনে সব কিছু ঠকে শিখবেন তার সময় নেই।

কথায় আছে: ঠকে শেখার থেকে অন্যের ভুল দেখে শিখে নেওয়া টা বুদ্ধিমানের। এই সমস্ত অভিজ্ঞতা জীবনকে অনেক সঠিক পথে চালনা করে।


আমার এই লেখাটি যদি ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। এছাড়াও আপনার যদি কিছু যুক্ত করার ইচ্ছে থাকে তাহলে কমেন্ট এ লিখবেন।

শেয়ার করুন

Leave a Comment

Your email address will not be published.