ফানি কথা – মজার জোকস – হাসির জোকস – ফানি কথাবার্তা – বাংলাতে

ফানি কথা – মজার জোকস – হাসির জোকস – ফানি কথাবার্তা

আপনাদের হাসি খুশি রাখতে এই জোকস গুলি আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করলাম। এগুলি বাচ্ছাদের সংঙ্গেও একসাথে পড়তে পারেন কারণ পোস্ট গুলি সুম্পূর্ণভাবে পরিষ্কার ও কোনো খারাপ শব্ধ ব্যবহার করা হয়নি। তাই পড়তে থাকুন bengali funny jokes

Contents show

পড়ুন মজার মজার ভাইরাল বাংলা জোকস ( হাসির জোকসগুলি একদম মিস করবেন না ) Bengali funny jokes


ছেলে : আমি মাসে যা টাকা ইনকাম করি। ওতে, তোমার চলে যাবে তো ?

মেয়ে : আমার তো চলে যাবে, কিন্তু তোমার কি হবে?😂🤣😝


বাবা: তোমার পরীক্ষা কেমন হলো?

ছেলে: ১ আর ৩ নম্বরের প্রশ্ন টা সিলেবাসের বাইরে ছিল।

বাবা: আর বাকি গুলো?

ছেলে: ৫ আর ৬ নম্বরের টা স্কুলে পড়ায়নি।

বাবা: তাহলে বাকি গুলো?

ছেলে : ৮ আর ১০ নম্বরের উত্তর লেখার সময় পাইনি।

বাবা: তাহলে বাকি ২,৪,৭ নম্বরের উত্তর লিখেছিস?

ছেলে: ওটার উত্তরটাই তো ভুল লিখে ফেলেছি।😂😝


সাংবাদিক টিভি তে বলছেন: আমাদের সাংবাদিক এখনই আপনাকে পরিস্থিতি দেখাতে দিল্লি নিয়ে যাবে।

বল্টু খবরের চ্যানেলে ফোন করে বলছে: সেই কখন থেকে জামাকাপড় পড়ে ঘরে বসে আছি , কখন নিয়ে যাবেন। 😂😝


ম্যাডাম: ছেলেরা বলোতো, এমনকি জিনিস যা, মশা পারে কিন্তূ মাছি পারে না?

পাপ্পু: ম্যাডাম, মশা fly করতে পারে কিন্তূ, মাছি mosquito করতে পারে না 😂😝।


একজন শিষ্য গুরুর কাছে গেলেন।

শিষ্য: গুরু, আমি কিভাবে শতবছর বাঁচবো?

গুরু: তাহলে বিয়ে করে ফেল।

শিষ্য: তাহলে শতবছর বাঁচবো?

গুরু: না, তাহলে বেঁচে থাকার ইচ্ছেটাই উঠে যাবে। 😂😝


দোকানদার: ম্যাডাম, আপনাকে তো দোকানের সমস্ত জুতো দেখলাম। আর তো এমন কিছুই নেই। যা, দেখানোর মত আছে।

মহিলা: ওই যে ডিব্বা দেখা যাচ্ছে। ওটাতে কি আছে?

দোকানদার: ম্যাডাম, এবার তো দেখা বন্ধ করুন। ওতে আমার দুপুরের খাবার আছে। 😂😝


ছেলে: বাবা, আমি আবার ফেল হয়ে গেছি।

পিতা: কোনো সমস্যা নেই বেটা, তুমি হচ্ছো বাঘের ব্যাটা।

ছেলে: বাবা ম্যাডামও কিন্তুু ওটাই বলে।

পিতা: কি বলে?

ছেলে: ম্যাডাম বলে , ” কোন যে জানোয়ারের ব্যাটা বুঝতে পারি না”।

বাবা: কি ?……

😂😂😝


একদিন এক বণিক ও এক চাইনিজ লোক ট্রেনে করে যাতায়াত করেছিল।

হটাৎ করেই একটি মশা ট্রেনের মধ্যে প্রবেশ করলো।

প্রথম মশা এলো, চাইনিজ লোকটি খেয়ে নিলো।

দৃতীয় মশা এলো, চাইনিজ লোকটি ধরে খেয়ে নিলো।

তৃতীয় মশা এলো , বণিক মশাটি ধরে, চাইনিজ লোকটিকে বললেন , ” কত দামে কিনবেন ?”

😂😂🤣😝😂🤣🤣😝😜😝🤪😆😅😄😃😬


একজায়গায় কয়েক লোক মিলে জুয়া খেলছিলো। পুলিশ ওখানে গিয়ে সমস্ত জুয়াড়ী কে ধরে ফেললো।

একজন জুয়াড়ী হটাৎ করেই পুলিশের গাড়িতে উঠে পড়লো।

এটা দেখে পুলিশ টি জিগেস করলেন : “তুই হটাৎ করেই গাড়িতে উঠলি কেন” ?

জুয়াড়ী : আগের বারও ধরা পড়েছিলাম, সেবারে বসার সিট পাইনি।

😂😂🤣😝😜😝🤪😆😅😄😃😬😝😂🤣🤣


টিচার : ছাত্ররা , বৌ ও বোনের মধ্যে শেষ্ট কে?

বল্টু : (বল্টু কিচুক্ষন ভাবার পর, হটাৎ করেই বলে উঠলো ) বৌয়ের বোন স্যার।

😝😜😝🤪😆😅 (স্যার তারপর, বল্টুকে ক্লাসের মনিটর বানিয়ে দিলো)


আত্মীয়কে বিস্কিট দেওয়ায়, আত্মীয়টি রেগে গিয়ে বললেন : “আমাদের বাড়িতে এসব বিস্কিট কুকুরদের দিই”।

পল্টু: (সঙ্গে সঙ্গে উত্তর দিলো ) আমরাও কুকুরকেই দিই।

Poltu rock and relative shock.😝😜😝🤪😆😅


শয়তান ছেলেটি তার মাকে বলছে….

শয়তান ছেলে : মা জানো আজকে রাতে হিসি করতে যাওয়ার সময় কি হয়েছিলো।

মা : না তো ! কি হয়েছে ?

শয়তান ছেলে : আজকে যখন হিসি করতে গিয়ে বাথরুমের দরোজা খুললাম। আপনা আপনি লাইট জ্বলে গেলো। তারপরে ঠান্ডা ঠান্ডা হাওয়া আসছিলো।

এটি শোনার পর, মা রেগে গিয়ে বললো: হতচ্ছাড়া ছেলে আবার ফ্রিজে হিসি করে এসেছিস।

😜😝


বাড়িতে আত্মীয় এসেছে তাই, নতুন বৌমা শশুরকে বলছে…..

বউমা : শশুরমশাই, ঘরে আত্মীয় এসেছে। তাই, বাজার থেকে ফেরার পথে মিষ্টি নিয়ে আসবেন।

শশুর : তোমার শাশুড়িমায়ের নাম মিষ্টি , আর বাড়ির বড়োদের নাম নেওয়া হয় না।

বউমা : ঠিক আছে শশুরমশাই, এরপর থেকে আর এই ভুল হবে না।

কিছুক্ষণ পরে, সব মিষ্টি বিড়ালে খেয়ে নিলো ….

তারপর,

বৌমা: শশুরমশাই শশুরমশাই, বাড়িতে শাশুড়ীমা আর নেই ,শাশুড়িমাকে বিড়ালে খেয়ে নিয়েছে। বাজার থেকে নতুন করে শাশুড়িমা নিয়ে আসুন। আত্মীয়দের শাশুড়িমা দিয়ে খেতে দেবো।

শাশুড়ী এটি শুনে অজ্ঞান। 😜😝🤪


স্যার : বলোতো , ১৫ টি ফলের নাম।

ছাত্র : স্যার , লিচু।

স্যার : খুব সুন্দর।

ছাত্র : আম।

স্যার :বাহ্! খুব ভালো।

ছাত্র : আপেল।

স্যার : সাবাশ। আরো ১২ টি

ছাত্র: আর এক ডজন কলা।😂


সাইকেল চালক, রাস্তায় ঘচু কে ধাক্কা দেওয়ার পর।

সাইকেল চালক: আপনি আজ খুব ভাগ্যবান ।

ঘচু: একে তো আপনি আমাকে ধাক্কা মেরেছেন , তারপর আবার আমাকে বলছেন আমার ভাগ্য খারাপ?

সাইকেল চালক : কারণ আজকে রবিবার তাই সাইকেল চালাচ্ছি। অন্যদিন আমি ট্রাক চালাই।😂


অফিসের বস: আমি যে তোমাকে ফোন করেছিলাম তোমার বউ ফোন ধরেছিল। বললো, তুমি নাকি রান্না করছিলে, এটা কি সত্যি?

কর্মচারী: হ্যাঁ স্যার, রান্না করছিলাম।

বস: তাহলে, তুমি আমাকে ঘুরে ফোন করোনি কেনো?

কর্মচারী: স্যার, করেছিলাম তো কিন্তুু আপনার পত্নী ফোন ধরেছিলেন। উনি বললেন, আপনি এখন বাসন মাজছেন।😂😂


নিজেকে কিভাবে খুশি রাখতে হয়, এটা প্রেসার কুকার এর থেকে শিখুন।

প্রেসার কুকারের নিচে আগুন জ্বলছে কিন্তুু প্রেসার কুকার কেমন মনের আনন্দে সিটি বাজিয়ে যাচ্ছে😝।


মা : সোনু বাবা কি করছো ?

ছেলে : মা, পড়ছি।

মা : বাহ্। কি পড়ছো ?

ছেলে : তোমার হবু বৌমার মেসেজ।😂


গুরুজনের বাণী ও পুরুষের সমস্যা

গুরুজন: যেখানে নিজের সম্মান নেই সেখানে যাওয়া উচিত নয়।

বিবাহিত পুরুষ: তাহলে কি আমি ঘরে যাবো না?😂


স্ত্রী: জানো, পাশের বাড়ির মেয়েটা বিজ্ঞানে ১০০ এর মধ্যে ৯৮ পেয়েছে।

স্বামী: বাকি ২ নাম্বার কোথায় গেলো?

স্ত্রী: ওটাতো তোমার ছেলে নিয়ে এসেছে।😂

😂


একজন বৃদ্ধের বাড়ির দেওয়ালে সবসময় কেউ না কেউ হিসি করে যেতো।

কিন্তূ বৃদ্ধ কাউকেই ধরতে পারতেন না ।তাই উনি মাথায় বুদ্ধি খাটিয়ে দেওয়ালে লিখলেন: এই দেওয়ালে কুকুর হিসি করে। পড়তে থাকুন

শেয়ার করুন

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *