ব্যাটারী চালিত স্কুটার নাকি তেল চালিত স্কুটার কোনটি বেশি সাশ্রয়ী?

ব্যাটারি চালিত স্কুটার ও তেল চালিত স্কুটার এর মধ্যে আজকে তুলনা করবো কোনটি বেশি সাশ্রয়ী।

ব্যাটারি চালিত স্কুটার আর পেট্রোল চালিত স্কুটার বিভিন্ন মডেল এর হয়। বিভিন্ন কোম্পানির আছে তাই এখানে একটু ভালো মানের ব্যাটারি স্কুটার ও একটি একই দামের পেট্রোল চালিত স্কুটার এর তুলনা করে দেখবো কোনটি বেশি সস্তায় বেশি দূর যেতে পারবে এবং কোনটিতে সব কিছু মিলিয়ে কম খরচ হবে ।

১. দাম

লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি যুক্ত স্কুটার কিনলে দাম মোটামুটি ১ লাখ টাকার কাছ কাছি রেখে দিন মোটামুটি ভালো ধরনের।

এবং একই ধরনের ১ লাখ টাকার পেট্রোল চালিত স্কুটার পাওয়া যায়।

২. চার্জিং ও পেট্রোল খরচ

একটা ব্যাটারি যুক্ত স্কুটি সাধারণত ১০ পয়সা তে প্রতি km যেতে পারে। অর্থাৎ ১ কিমি রাস্তা যাওয়ার জন্য যে পরিমাণ চার্জিং করতে খরচ হয় তার মূল্য ১০ পয়সা এর আশ পাশ।

কিন্তূ পেট্রোল স্কুটি তে বর্তমানে হয় ১০০ টাকা করে পেট্রোল ধরেন এবং ৫০ কিমি যদি ১ লিটার পেট্রোল যাওয়া যায়।

তাহলে মোটামুটি ১ কিমি যেতে ২ টাকা খরচ হচ্ছে । অর্থাৎ পেট্রোল স্কুটি অনেক ব্যাবহার করলে অনেক বেশি খরচ হয়।

অর্থাৎ ২ টাকায় আপনি ২০ কিমি যেতে পারবেন ব্যাটারি স্কুটি তে আর ২ টাকায় মাত্র ১ কিমি যেতে পারবেন পেট্রোল স্কুটি তে।

৩. মেইনটেন্যান্স

ইলেকট্রিক স্কুটি তে মেইনটেন্যান্স খরচ নেই বললেই চলে।

আর পেট্রোল স্কুটি তে মেইনটেন্যান্স খরচ প্রচুর। ৩ মাস পর পর স্কুটি এর সার্ভিসিং করানো দরকার পড়ে।

৪. ব্যাটারি পরিবর্তন

পেট্রোল স্কুটি তে ব্যাটারি পরিবর্তন এরকম কিছু নেই। কিন্তূ ব্যাটারি চালিত স্কুটি তে ব্যাটারি ৩ বছর পর যদি চেঞ্জ করতে চান তাহলে ৩০ হাজার টাকার মতো আবার খরচ লেগে যেতে পারে।

যদিও হিসেব করে দেখলে পেট্রোল ব্যাবহার করে ৩ বছরে যে টাকা খরচ করা হয়ছে ওই টাকার থেকে অনেক কম খরচ লাগবে ব্যাটারি নতুন লাগাতে।

আর আবার একটি কথা হলো ৩ বছর পর ব্যাটারি চেঞ্জ করলে আবার ৩ বছরের জন্য টাকা পেট্রোল এর মত টাকা খরচ থেকে বেঁচে যাবেন।

অর্থাৎ ৩ বছর পর যদি ব্যাটারি পরিবর্তন করেই থাকেন তাহলে টোটাল ৬ বছর চলবে ।

শেয়ার করুন

Leave a Comment

Your email address will not be published.