সামান্তরিক কাকে বলে?, বৈশিষ্ট্য, ক্ষেত্রফলের সূত্র, পরিসীমার সূত্র

‘parallelogram (সামান্তরিক) শব্দটি এসেছে গ্রীক শব্দ parallelogrammon যার অর্থ “সমান্তরাল রেখা দ্বারা আবদ্ধ”। সামান্তরিক হলো একটি বিশেষ ধরনের চতুর্ভুজ।

আরো জানুন: চতুর্ভূজ কাকে বলে?

সামান্তরিক কাকে বলে?

যে চতুর্ভুজের বিপরীত বাহুগুলো পরস্পর সমান ও সমান্তরাল কিন্তু কোণগুলো সমকোণ নয় তাকে সামান্তরিক বলে।

সামান্তরিকের বৈশিষ্ট্য

সামান্তরিক কাকে বলে
  • সামান্তরিকের বিপরীত বাহুগুলো পরস্পর সমান্তরাল।
  • সামান্তরিকের বিপরীত বাহুগুলো পরস্পর সমান।
  • সামান্তরিকের বিপরীত কোণগুলো পরস্পর সমান।
  • সামান্তরিকের কর্ণদ্বয় অসমান অর্থাৎ সমান নয়।
  • সামান্তরিকের যেকোনো সন্নিহিত কোণদ্বয়ের সমষ্টি দুই সমকোণ বা ১৮০°।
  • সামান্তরিকের কর্ণদ্বয় পরস্পরকে সমদ্বিখণ্ডিত করে।
  • সামান্তরিকের যে কোন কর্ণ সামান্তরিকটিকে দুইটি সর্বসম ত্রিভুজে বিভক্ত করে।
  • সামান্তরিকের চারটি বাহুর উপর অঙ্কিত বর্গক্ষেত্রগুলোর সমষ্টি তার কর্ণদ্বয়ের উপর অঙ্কিত বর্গক্ষেত্র দুইটির সমষ্টির সমান।

সামান্তরিকের ক্ষেত্রফল

সামান্তরিকের ক্ষেত্রফল = (ভূমি × উচ্চতা) বর্গএকক

সামান্তরিকের ক্ষেত্রফলের সূত্র

সামান্তরিকের ভূমি এবং উচ্চতার গুনফল হলো সামান্তরিকের ক্ষেত্রফল।

সামান্তরিকের পরিসীমা

সামান্তরিকের পরিসীমা = ২(দৈর্ঘ্য + প্রস্থ্য) একক ।

সামান্তরিকের পরিসীমার সূত্র

সামান্তরিকের সবগুলো বাহুর সমষ্টিকে সামান্তরিকের পরিসীমা বলে।

একটি সামান্তরিকের ভূমি 5 একক এবং উচ্চতা 4 একক হলে ক্ষেত্রফল কত?

সামান্তরিকের ক্ষেত্রফলের সুত্র হল : (ভূমি × উচ্চতা) বর্গএকক ।
সামান্তরিকের ক্ষেত্রফল = 5 × 4 =20 বর্গএকক ।

একটি সামান্তরিকের দৈর্ঘ্য 3 একক এবং প্রস্থ 4 একক হলে ক্ষেত্রফল কত?

সামান্তরিকের পরিসীমা = 2(দৈর্ঘ্য + প্রস্থ্য) একক ।
সামান্তরিকের পরিসীমা = 2(3+4) =14 একক।

শেয়ার করুন

Leave a Comment

Your email address will not be published.