মোবাইলের আলো থেকে চোখের সুরক্ষার উপায়

মোবাইলের আলো থেকে বাঁচার উপায়

আমরা অনেকেই সারাদিন মোবাইল, কম্পিউটার, ল্যাপটপ ব্যাবহার করে থাকি। কিন্তুু এগুলি চোখ ও মস্তিষ্কের অনেক সমস্যার সৃষ্টি করে। তাই এই আর্টিকেল লেখার কারণ হলো কিভাবে আপনি নিজের চোখকে সুরক্ষিত রাখবেন মোবাইলের আলো থেকে? এই বিষয়ে সমস্ত তথ্য পেতে এই পোস্টটি শেষ পর্যন্ত পড়ুন।

কেনো মোবাইলের আলো ক্ষতিকারক

সাধারণত আমরা ঘরের মধ্যে লাইট (light) এর আলো ব্যবহার করি। যা আমাদের চোখের খুব বেশি সমস্যা করে না।

কিন্তুু,মোবাইল , কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপ থেকে একটি বিশেষ ধরনের ব্লু লাইট (Blue light) বের হয়। যা আমাদের চোখের পক্ষে খুবই খারাপ।

blue Light এর ফলে কি কি সমস্যা দেখা দেয়

চোখের দৃষ্টি শক্তি কমে যেতে পারে এবং মেজাজ খিটখিটে হয়ে যায় ও মাথা ধরে থাকা , মাথার যন্ত্রণা খুবই স্বাভাবিক সমস্য দেখা দিতে পারে।

চোখের মধ্যে যে রেটিনা cell থাকে। ওই Retina Cell এর ওপরে বেশি সময় ধরে ব্লু light পড়লে , রেটিনা cell খারাপ হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এভাবেই blue light আমাদের চোখের ক্ষতি করে।

আমি আমার নিজস্ব অভিজ্ঞতা থেকে বলছি, আমারও আগে প্রায়ই মাথা ধরে থাকতো, মাথা যন্ত্রণা। এসবের কারণে মেজাজ খিটখিটে হয়ে গিয়েছিল।

কারণটা বুঝতে পারছিলাম না। কিন্তূ আমার মনে হচ্ছিল, বেশি মোবাইল ব্যবহার করার কারণেও এরকম সমস্যা দেখা দিতে পারে।

এরপর আমি একদিন অনলাইনে থেকে কম্পিউটার , মোবাইলের আলো থেকে চোখ বাঁচানোর জন্য চশমা কিনলাম।

যেদিন থেকে চশমা পরে কম্পিউটার , মোবাইল ব্যবহার করতে শুরু করলাম । তারপর থেকে মাথার যন্ত্রণার সমস্যা শেষ।

কিভাবে Blue Light থেকে চোখের রক্ষা করবেন?

আমরা যারা দিনের বেশিরভাগ সময় মোবাইল ব্যবহার করে থাকি , ওনাদের জন্য এই তথ্যগুলি অবশ্যই জানা উচিত।

চোখকে এরকম আলো থেকে বাঁচায় যা যা করণীয় টা নিচে দেওয়া হলো:

১. কম ব্যবহার ডিভাইসগুলি:

মোবাইল, কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপ এসব জিনিস থেকে যে blue light বেরোয়। তাই যতটা সম্ভব এগুলিকে কম ব্যবহার করা উচিত।

২. কম্পিউটার গ্লাস

যদি আপনার কাজটিই হলো, কম্পিউটারে বসে অথবা মোবাইল ব্যবহার করে। সেক্ষেত্রে কম্পিউটার গ্লাস এরকম নামের গ্লাস ব্যবহার করতে পারেন।

কম্পিউটার, মোবাইল এই সমস্তকিছু ব্যবহার করার সময় পরতে পারেন।

কম্পিউটার গ্লাস এর সুবিধা হলো, এটি কম্পিউটার ও অন্যান্য ডিভাইস থেকে বেরোনো ব্লু লাইট (blue Light) কে চশমা ভেদ করে চোখ পর্যন্ত আসতে দেয় না।

যার ফলে আপনার চোখটি তে কোনো ব্লু লাইট এসে পড়ে যা। সমস্ত ব্লু লাইট চশমা এর ওপরের অংশ থেকে বিকিরিত হয়।

এই গ্লাসগুলি খুবই কার্যকরী , চোখের সুরক্ষার জন্য।

যদি গ্লাসটি কিনতে চান তাহলে , অনলাইনে কিনতে পারেন অথবা কাছের কোনো দোকান থেকেও কিনতে পারেন ।

কাছের কোনো দোকান থেকে eye protecting comPuter গ্লাস কেনার আগে, ওই চশমা টিকে ব্লু লাইটের মাধ্যমে পরীক্ষা করে নেবেন।

অর্থাৎ, যেই দোকান থেকে চশমাটি কিনবেন , ওই দোকানে blue light এর একটি টর্চ থাকতে পারে।

এবং ওই টর্চ টি নিয়ে কম্পিউটার গ্লাসের অপর ফেললে দেখতে পাবেন , ব্লু লাইট চশমা এর ওপরে ফেলছেন কিন্তুু উল্টোদিক দিয়ে Blue light টি বেরোচ্ছে না।

তাহলেই বুঝবেন ওটি আসল। আর যদি ব্লু লাইট ফেললে চশমার উল্টোদিক দিয়ে বেরিয়ে যায়। তাহলে বুঝবেন ওটি কম্পিউটার , মোবাইলের Blue Light থেকে চোখের সুরক্ষার জন্য নয়।

৩. কম্পিউটার মোবাইলের সোজাসুজি বসে না থাকা:

কমপিউটার ও অন্যান্য ডিভাইস থেকে নির্গত ব্লু লাইট (Blue Light) সুজাসুজি বেরিয়ে আমাদের চোখে পড়ে।

তাই, আমরা যদি কোনাকুনি ভাবে দেখি , তাহলে নির্গত ব্লু রশ্মি আমাদের চোখে খুব বেশি পড়বে না।

যার ফলে , কিছুটা রেহাই পাওয়া যাবে ব্লু রশ্মি থেকে।

৪. anti reflection Protector:

কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপের জন্য eye protection স্ক্রিন প্রটেক্টর পাওয়া যায়। ওটিও ব্যবহার করতে পারেন।

স্ক্রিন প্রটেক্টর অনেক blue Light কে অনেক কমিয়ে দেবে, যা আপনার চোখের পক্ষে ভালো।

৫. চোখ শুকিয়ে যাওয়া

বেশি সময় ধরে ল্যাপটপ , কম্পিউটার অথবা মোবাইল ব্যবহারের ফলে চোখের মধ্যে যে রস থাকে, তা শুকিয়ে যেতে পারে। যা একটি খারাপ লক্ষণ।

তাই আপনার চোখে যদি এরকম কোনো সমস্যা দেখা দেয় , তাহলে চেষ্টা করুন চোখের মধ্যে কৃত্রিমভাবে জল নিয়ে আসার জন্য।

৬. ২০ মিনিটের বেশি দেখা উচিত নয় :

আমরা অনেকেই একটানা ঘন্টার পর ঘন্টা মোবাইল ব্যবহার করে যাই, যারা এরকম ভাবে এই সমস্ত ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইসগুলি করেন, ওনাদের উচিত ২০ মিনিট কম্পিউটারের দিকে তাকিয়ে থাকার পরে ১ মিনিটের জন্য অন্তত চোখের বিশ্রাম নিতে পারেন।

বিশ্রামের সময় চোখের পাতা কে ওপর নিচে করতে পারেন , এতে অনেকটা সমস্যা এর সমাধান হয়ে থাকে।

উপসংহার :

চোখের সুরক্ষা আপনাকে রাখতেই হবে , কারণ আমাদের জীবনে চোখ ছাড়া সবকিছুই অন্ধকার।

চেষ্টা করুন কম ব্যবহার করতে এইসব ইলেকট্রনিক্স জিনিসগুলি অথবা আপনার কাজটি যদি কম্পিউটারে বসে হয়। তাহলে আপনাকে eye protection এর গ্লাস ব্যবহার করা সবথেকে লাভজনক হবে।

আশাকরি বন্ধুরা আপনি আপনাদের প্রশ্নের উত্তরটি দিয়ে সন্তুষ্ট করতে পেরেছি। যদি কোনো সমস্যা অথবা কোনো প্রশ্ন থাকে তাহলে কমেন্ট করতে পারেন।

শেয়ার করুন

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *