ল্যাপটপের জেনারেশন কি?

আমরা যখনই ল্যাপটপ কিনতে যাই তখন দোকানদার আমাদের বলে থাকেন “এই ল্যাপটপটি নেন এই ল্যাপটপের মধ্যে ইন্টেল i3 5th জেনারেশনের প্রসেসর আছে”।

এরকম শব্দ শুনে থাকি সাধারণত।

আসলে এই জেনারেশন কি?

আসলে ল্যাপটপের কোনো জেনারেশন হয়না। জেনারেশন হয় প্রসেসরের (CPU এর) অর্থাৎ কম্পিউটারের অথবা ল্যাপটপের মধ্যে যে প্রসেসর লাগানো আছে ওই প্রসেসর এর জেনারেশনের কথা বলা হয়।

প্রসেসরের জেনারেশন কি?

প্রসেসর অর্থাৎ সিপিইউ এর মধ্যে কোটি কোটি ট্রানজিস্টর থাকে। এবং ওই ট্রানজিস্টর একত্রিত হয়ে প্রসেসরের কাজ করে।

অর্থাৎ সিপিইউ এর মধ্যে কোটি কোটি ট্রানজিস্টর আছে।

ওই ট্রানজিস্টার এর আকার ন্যানোমিটার এ হয়। অর্থাৎ এক একটা ট্রানজিস্টর এতটাই ক্ষুদ্র যে খালি চোখে আমরা দেখতে পাবো না।

ওই ট্রানজিস্টরের আকার যত ক্ষুদ্র হবে তত কম বিদ্যুৎ গ্রহণ করবে ।

সেইসঙ্গে ট্রানজিস্টর যত ছোট হবে ততই একটি একই আকারের সিপিইউ এর মধ্যে আরো বেশি পরিমাণ ট্রানজিস্টর থাকবে।

উদাহরণ স্বরূপ : ধরুন একটি সিপিইউ এর আকার ২০০ ইঞ্চি² ।

  1. একটি ট্রানজিস্টরের আকার যদি ওই ২০০ ইঞ্চি² হয় তাহলে মাত্র ১ টি ট্রানজিস্টর ওই সিপিইউ এর মধ্যে থাকবে।
  2. ট্রানজিস্টর এর আকার যদি ১০০ ইঞ্চি² হয় তাহলে ২ টি ট্রানজিস্টর ওই একই আকারের সিপিইউ এর মধ্যে থাকবে।

যার ফলে ২য় সিপিইউ অনেক বেশি দ্রুত কাজ করবে। প্রথম সিপিইউ এর তুলনায়।

Intel কোম্পানি যখন প্রথম সিপিইউ (প্রসেসর) বানিয়েছিল। তখন বলেছিল প্রতিবছর সিপিইউ এর মধ্যে থাকা ট্রানজিস্টরের সংখ্যা দ্বিগুণ করে দেবেন ট্রানজিস্টরের আকার ছোট করার মাধ্যমে।

অর্থাৎ, রিসার্চ এর মাধ্যমে ট্রানজিস্টরের আকার ছোট করবে যার ফলে একই আকারের প্রসেসরের মধ্যে দ্বিগুণ পরিমাণ ট্রানজিস্টর রাখা সম্ভব হয়।

দ্বিগুণ ট্রানজিস্টর থাকলে , স্পীড ও দ্বিগুণ হবে এবং প্রসেসর এর মধ্যে থাকা ট্রানজিস্টরের মধ্যে আকার যেহেতু ছোটো। তাই বিদ্যুৎ অনেক কম নেবে।

ধরুন ইন্টেল কোম্পানির 3rd জেনারেশনের i3 প্রসেসর ব্যবহার করছেন। এবং কয়েক বছর পরে ট্রানজিস্টরের আকার আরো ছোটো করে পরবর্তী i3 প্রসেসর যখন lunch হবে তখন ওই প্রসেসরের জেনারেশন হবে 4th।

অর্থাৎ, ওই 4th জেনারেশনের i3 processor এর মধ্যে ট্রানজিস্টরের আকার অনেক ছোটো আছে । ছোটো হওয়ার কারণে বেশি পরিমাণ ট্রানজিস্টর লাগানো আছে ওই প্রসেসরের মধ্যে।

তাই ওই চতুর্থ জেনেরেশনের i3 প্রসেসর অনেক দ্রুত কাজ করতে সক্ষম পুরোনো জেনারেশনের i3 processor এর তুলনায়।

প্রসেসর যখন প্রথম বানানো হয়েছিল তখন ওই প্রসেসরের মধ্যে লাগানো ট্রানজিস্টরের আকার অনেক বড়ো ছিল।

প্রসেসর এর মধ্যে থাকা ট্রানজিস্টরের আকার ছোট হবে ততই ওই প্রসেসর অনেক কম বিদ্যুৎ গ্রহণ করবে এবং ট্রানজিস্টার এর আকার কম হওয়ার কারণে আরো বেশি পরিমাণ ট্রানজিস্টর লাগানো সম্ভব হয় যার ফলে ওই প্রসেসর আরো দ্রুত কাজ করতে সক্ষম।

অর্থাৎ, ল্যাপটপ এর জেনারেশন বলতে ল্যাপটপের মধ্যে লাগানো প্রসেসরের জেনারেশনের কথা বলা হচ্ছে ।

প্রসেসরের জেনারেশন যত বেশি নতুন হবে ততই বেশি দ্রুত কাজ করবে । কারণ পুরোনো জেনারেশনএর তুলনায় নতুন জেনারেশনএর প্রসেসরের মধ্যে বেশি পরিমাণ ট্রানজিস্টর থাকে।

AMD এবং Intel এই দুটি কোম্পানীর প্রসেসর আমাদের কম্পিউটার/ল্যাপটপে লাগানো হয়ে থাকে তাই এই দুটি কোম্পানীর প্রসেসর গুলির নতুন নতুন জেনারেশন বের হয় । ঐ জেনারেশন যত নতুন হয় ততই দাম কিছুটা বেশি হয় । কারণ নতুন জেনারেশনএর প্রসেসর এর স্পীড বেশি হয় এবং বিদ্যুত অনেক কম খরচ করে পুরোনো জেনারেশন এর প্রসেসরএর তুলনায় ।

শেয়ার করুন

Leave a Comment

Your email address will not be published.