হিমবাহ কাকে বলে? – শ্রেণীবিভাগ, দীর্ঘতম ও দ্রুততম হিমবাহ

বিশালাকৃতির তুষার বা বরফের স্তুপ যখন মাধ্যাকর্ষণ শক্তির প্রভাবে উঁচু পার্বত্য অঞ্চলের ঢালু বরাবর ধীরে ধীরে নিচের দিকে নামতে থাকে, তখন তাকে হিমবাহ বলে। এজন্য হিমবাহকে বরফের নদীও বলে ।

হিমবাহগুলি পতিত তুষার দ্বারা গঠিত , সেই তুষার খুবই নরম । যেখানে প্রায় সারা বছরই তুষারপাত হয় সেখানে ক্রমশ জমা হওয়া তুষারের সম্মিলিত চাপে নীচের তুষার স্তর জমাট বেঁধে কঠিন বরফে পরিণত হয় । বরফের পরিমাণ বেড়ে গেলে, ওপরের বরফের চাপে এবং মাধ্যাকর্ষণের প্রভাবে উঁচু পার্বত্য অঞ্চলের ঢালু বরাবর ধীরে ধীরে নিচের দিকে নামতে থাকা সেই বরফের ধারাকেই হিমবাহ বলে

পাহাড়ের ঢাল বেয়ে হিমবাহ যখন নামতে থাকে তখন নীচের দিকে প্রচণ্ড চাপ ও ঘর্ষণের জন্য হিমবাহের তলদেশে তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পায়। এর ফলে তলদেশের বরফ গলে গিয়ে অবতরণ পথকে পিচ্ছিল করে দেয় । তখন পাহাড়ের ঢাল বেয়ে কঠিন বরফ যুক্ত হিমবাহের নীচের দিকে নামাও কিছুটা সহজ হয়ে যায় ।

হিমবাহগুলিকে যা অনন্য করে তোলে তা হল তাদের প্রবাহিত হওয়ার ক্ষমতা। হিমবাহগুলি খুব ধীর নদীর মতো প্রবাহিত হয়। কিছু হিমবাহ ফুটবল মাঠের মতো ছোট, অন্যগুলো কয়েক ডজন বা এমনকি কয়েকশ কিলোমিটার লম্বা হয়।

হিমবাহের, শ্রেণীবিভাগ

হিমবাহকে অবস্থান অনুসারে তিনটি শ্রেণিতে ভাগ করা যায় — 

১ ) পার্বত্য বা উপত্যকা হিমবাহ ,  : উচ্চ পার্বত্য অঞ্চল থেকে বিভিন্ন উপত্যকার মধ্যে দিয়ে প্রবাহিত হয় , সেইসব হিমবাহকে বলে পার্বত্য বা উপত্যকা হিমবাহ ।

২ ) মহাদেশীয় হিমবাহ : উচ্চভূমি-নিম্নভূমি নির্বিশেষে মহাদেশের বিস্তীর্ণ অঞ্চল যখন বরফে ঢাকা থাকে , তখন তাকে বলে মহাদেশীয় হিমবাহ ।

৩ ) পর্বত পাদদেশীয় হিমবাহ : হিমবাহ যখন উঁচু পর্বতের ওপর থেকে পর্বতের পাদদেশ অঞ্চল পর্যন্ত বিস্তার লাভ করে , তখন তাকে বলে পর্বত পাদদেশীয় হিমবাহ ।

হিমবাহগুলি বিশ্বের মোট ভূমি কত শতাংশ দখল করে আছে?

বর্তমানে, হিমবাহগুলি বিশ্বের মোট ভূমি এলাকার প্রায় 10 শতাংশ দখল করে আছে, যার বেশিরভাগই অ্যান্টার্কটিকা, গ্রিনল্যান্ড এবং কানাডিয়ান আর্কটিকের মতো মেরু অঞ্চলে অবস্থিত।

বেশিরভাগ হিমবাহগুলি পর্বতশ্রেণীর মধ্যে রয়েছে যা গত দুই মিলিয়ন বছরের বরফ যুগে অনেক বেশি পরিমাণের প্রমাণ দেখায় এবং বিগত কয়েক শতাব্দীতে পশ্চাদপসরণের সাম্প্রতিক ইঙ্গিতগুলি দেখায়।

হিমবাহগুলিকে শেষ বরফ যুগের অবশিষ্টাংশ হিসাবে ভাবা যেতে পারে, যখন বরফে ভূমির প্রায় 32 শতাংশ এবং মহাসাগরের 30 শতাংশ আবৃত ছিল।

পৃথিবীর দীর্ঘতম হিমবাহ কোনটি?

ল্যাম্বার্ট হিমবাহ হলো বিশ্বের বৃহত্তম হিমবাহ।
অ্যান্টার্কটিকার ল্যাম্বার্ট হিমবাহ, বিশ্বের দ্রুততম বরফের স্রোতগুলির মধ্যে একটি।
এটি প্রায় ৬৪ কিলােমিটার প্রশস্ত এবং সমুদ্রের দিকে বিস্তৃত অংশ যুক্ত করে প্রায় ৭০০ কিলােমিটার দীর্ঘ ।

পৃথিবীর দ্রুততম হিমবাহ কোনটি

গ্রীনল্যান্ডের জ্যাকবশাভন ইসব্রেই (Jakobshavn Isbrae) সাধারণত বিশ্বের দ্রুততম হিমবাহ, যার গতি প্রতিদিন 40 মিটার পর্যন্ত।

শেয়ার করুন

Leave a Comment

Your email address will not be published.