কোড কি? সোর্স কোড কি?

সহজ অর্থে কোড হল কিছু লেখা যার মাধ্যমে কম্পিউটারকে নির্দেশ দেওয়া হয়।

ওই লেখা শুধুমাত্র কম্পিউটার এবং কোড ডেভলপার বুঝতে পারবে।

এবং ওই কম্পিউটার বুঝতে পারবে এরকম লেখার মাধ্যমে কম্পিউটারকে নির্দেশ দেওয়া হয় বিভিন্ন কাজের জন্য।

কোড হলো একটি নির্দিষ্ট নিয়মে কিছু লেখা যা কম্পিউটারকে নির্দেশ দেওয়ার জন্য ব্যাবহার করা হয়।

ওই কোডকে কম্পিউটারে পড়তে পারবে এবং ওই লেখা অনুযায়ী কম্পিউটার কাজ করে ।

কোড কিভাবে কাজ করে?

ধরুন আপনি HTML CSS এর একটি কোড লিখে ওয়েবসাইট বানালেন। এবং ওই কোড গুলি একটি ইন্টারনেটের সঙ্গে যুক্ত কম্পিউটারে রাখলেন যায় যেকোনো জায়গা থেকে ওই ওয়েবসাইট টিকে যেকোন ব্যাক্তি খুলতে পারে।

অর্থাৎ আপনি একটি কোড লিখলেন ওই কোডকে ইন্টারনেটের সঙ্গে যুক্ত একটি কম্পিউটারে রেখে দিলেন।

যখনই কোনো ব্যাক্তি নিজের মোবাইল অথবা কম্পিউটার ওই ওয়েবসাইট টিকে খুলতে চাইবে তখন ইন্টারনেটের মাধ্যমে ওই কম্পিউটার থেকে আপনার লেখা কোডগুলি ওই ব্যাক্তি মোবাইল অথবা কম্পিউটারের ব্রাউজারে ডাউনলোড হবে।

এবং ব্রাউজার ওই কোডগুলি পড়তে পারবে এবং কোডের লেখা অনুযায়ী একটি ওয়েবসাইট সাজিয়ে ওই ব্যক্তির মোবাইলের স্ক্রীনে প্রস্তুত করবে।

কম্পিউটার ও মোবাইল যেভাবে কোডের মাধ্যমে কাজ করে:

ধরুন আপনি কোনো কাজ করছেন উইন্ডোজ অথবা অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল তখন ওই সমস্ত কাজের জন্য কোড গুলি লেখা থাকে অপারেটিং সিস্টেমে।

এবং এই লেখাগুলি বাইনারি সংখ্যা দিয়ে রূপান্তরিত হয় প্রসেসর কে নির্দেশ দেয় এবং প্রসেসর ওই কোডের বাইনারি সংখ্যাকে প্রসেস করে।

অর্থাৎ যেকোনো প্রোগ্রামিং ভাষায় কোড লেখা হোকনা কেনো ওই কোড বাইনারি সংখ্যা অর্থ্যা ০ এবং ১ এ রূপান্তরিত হয়ে কম্পিউটার ও মোবাইলের প্রসেসর কে নির্দেশ দেয়।

কোড কিভাবে লেখা হয়?

কোড লেখা হয় একটি নির্দিষ্ট নিয়মের মাধ্যমে। যেমন তেমন লিখলে হবেনা । তাহলে কম্পিউটার কিছুই বুঝতে পারেনা।

কোড লেখা হয় বিভিন্ন প্রোগ্রামিং ভাষার মাধ্যমে। বিভিন্ন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এর কোড লেখার ধরন আলাদা আলাদা হয়ে থাকে।

যেমন আপনি যদি ওয়েবসাইট বানাতে চান তাহলে HTML CSS JavaScript PHP python এরকম বিভিন্ন প্রোগ্রামিং ভাষা ব্যাবহার করতে পারেন।

আবার অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলের অ্যাপ বানাতে চাইলে java , kotlin এর মত প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ ব্যাবহার করতে পারেন।

আবার কম্পিউটারের উইন্ডোজ বানানোর জন্য C, C++ এই প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ ব্যবহার করা হয়েছে।

এবং অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলের অপারেটিং সিস্টেম বানানোর জন্য java, C, C++ এছাড়াও আরো কিছু প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এর ব্যবহার করা হয়েছে।

অর্থাৎ ভিন্ন ভিন্ন জায়গায় ভিন্ন ভিন্ন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ ব্যবহার করা হয়েছে এবং ওই প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজের নিয়ম অনুসারে লেখা হয়েছে ওই কোড।

যেমন ধরুন আপনি যদি PHP এর প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এর কোড লিখবেন ২ এর সঙ্গে ১ যোগ করবেন । তাহলে <?php echo “2+1”; ?> কোড লিখবেন এবং কম্পিউটারে ৩ উত্তর পাবেন।

সোর্স কোড কি?

কোডকেই আসলে সোর্স কোড ও বলা হয়ে থাকে।

যেমন কোনো ওয়েবসাইটের কোড দেখতে গেলে কম্পিউটারের মাউসে রাইট ক্লিক করলে , view source code নামের একটি অপশন দেখতে পাবেন। ওই অপশনে ক্লিক করে ওই ওয়েবসাইট এর কোড দেখতে পাবেন।

শেয়ার করুন

Leave a Comment

Your email address will not be published.